ফজরের নামাজ আদাই করুন এবং অন্যদেরকে ডেকে তুলুন জাহান্নামের আগুন থেকে পরিবারের সদস্যদের বাঁচান ।

জাহান্নামের আগুন

জনৈক মুফতীঃ জ্বী বোন, টিভির সাউন্ড
কমিয়ে আপনার প্রশ্নটি করুন।
.
জনৈক বোনঃ শাইখ, আমার স্বামী, পুত্র ও
কন্যার ঘুম অত্যন্ত গভীর। ফজরের সালাতের
সময় কোনভাবেই ওদের ঘুম ভাঙাতে পারি
না। কী করলে ফজরের সালাতের সময় ওদের
ঘুম থেকে ডেকে তুলতে পারবো?
.
জনৈক মুফতীঃ বোন, যদি আপনার ঘরে কখনো
আগুন লাগে এবং আপনার পরিবারের সদস্যরা
যদি তখন ঘরের ভেতর ঘুমাতে থাকেন, আপনি
কী করবেন তখন?
.
জনৈক বোনঃ অবশ্যই তাঁদের সবাইকে ঘুম
থেকে ডেকে তুলবো।
.
জনৈক মুফতীঃ কিন্তু ওদের ঘুম তো অত্যন্ত
গভীর – আপনিই বললেন।
.
জনৈক বোনঃ তারপরেও যে কোন মূল্যে
ডেকে তুলবো ওদের। জীবন-মৃত্যুর ব্যাপার!
.
জনৈক মুফতীঃ সুব’হানাল্লাহ। বোন, আপনি
পৃথিবীর আগুন থেকে নিজ পরিবারের
সদস্যদের বাঁচানোর জন্য তাঁদের গভীরতম ঘুম
থেকে ডেকে তুলতে যা যা করবেন, নুন্যতম
সেই কাজগুলোই করুন জাহান্নামের আগুন
থেকে তাঁদের বাঁচানোর জন্য। যদিও হিসেব
মতো সেই কাজগুলোর ৭০ গুন বেশী চেষ্টা
করা উচিত আপনার। কারণ –
.
আবু হুরায়রা (রাদিআল্লাহু আনহু) থেকে
বর্ণিত। রাসুলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি
ওয়াসাল্লাম) বলেছেন – “তোমাদের (ব্যবহৃত)
আগুন জাহান্নামের আগুনের ৭০ ভাগের ১
ভাগ মাত্র।”
[সহীহ বুখারীঃ অধ্যায় ৫৯ (সৃষ্টির সূচনা),
হাদীস ৭৫] .
[ঘটনাটি বর্ণনা করেন শাইখ মুহাম্মাদ আল
মালিকি (হাফিযাহুল্লাহ)] .
.
# JavedKaisar
Credit : Princess in hijab

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *